অনলাইনে আয় করার প্রাথমিক ধারনা

অনলাইনে আয় করার প্রাথমিক ধারনা

অনলাইনে আয় বা ফ্রিল্যান্সিং এখন তরুণ সমাজের কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। শিক্ষার্থীরা তাদের পড়াশুনার পাশাপাশি নিজ কর্ম দক্ষতায় স্বাবলম্বী হচ্ছে এই ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে। আজ আমরা আলোচনা করবো অনলাইনে আয় করার প্রাথমিক ধারনা সম্পর্কে আলোচনা করবো।

পড়ালেখা শেষে বা পড়ালেখার সাথে সাথে ফ্রিল্যান্সিং এ গড়ে নিতে পারেন আপনার ভবিষ্যৎ ক্যারিয়ার।

ফ্রিল্যান্সিং হচ্ছে মাল্টি বিলিয়ন ডলারের একটা বিশাল বাজার। উন্নত দেশগুলো কাজের মূল্য কমানোর জন্য আউটসোর্সিং করে থাকে। আমাদের পার্শবর্তী ভারত এবং পাকিস্থান সেই সুযোগটি খুব ভালোভাবে কাজে লাগিয়েছে।

আমরা যদি ফ্রিল্যান্সিং এর বিশাল বাজারের সামান্য অংশ কাজে লাগাতে পারি তাহলে এটি হতে পারে আমাদের অর্থনীতি মজবুত করার একটি শক্ত হাতিয়ার। আসুন জেনে নেই ফ্রিল্যান্সিং এর বিষয়ে বিস্তারিত।

ফ্রিল্যান্সিং কি ?

এককথায় বলতে গেলে, গতানুগতিক চাকুরীর বাইরে নিজের ইচ্ছামত কাজ করার স্বধীনতা হচ্ছে ফ্রিল্যান্সিং। যেমনঃ কেউ ব্যবসাকে পেশা হিসেবে নেন তাঁরা হলেন ব্যবসায়ী, যারা চাকুরী করেন তারা হলেন চাকুরীজিবী, আবার যারা মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করেন তারা হলেন মৎসজীবি, ঠিক তেমনি ফ্রিল্যান্সিং হলো এক ধরনের পেশা। আর যারা ফ্রিল্যান্সিং করেন তাদের কে বলা হয় ফ্রিল্যান্সার।

আউটসোর্সিং কি ?

ফ্রিল্যান্সিং এর সাথে আর একটি শব্দ প্রকাশ্য ভাবে জড়িত, তা হচ্ছে আউটসোর্সিং। ইন্টারনেটের ব্যাবস্থার মাধ্যমে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন ধরনের কাজ নিজ প্রতিষ্ঠানের বাহিরে অন্য কাউকে দিয়ে করিয়ে নেয়। এসব কাজ কে বলে আউটসোর্সিং। আর যারা আউটসোর্সিং করেন তাঁদের বলা হয় আউটসোর্সার বা বায়ার। সাধারনত এরাই ফ্রিল্যান্সিয়ারদের ক্লায়েন্ট হয়ে থাকে।

কেন আপনি ফ্রিল্যান্সিং কে ক্যারিয়ার হিসেবে বেঁচে নিবেন ?

আগেই বলছি যে ফ্রিল্যান্সিং হচ্ছে একটি স্বধীন পেশা, তাই এটি ক্যারিয়ার হিসেবে বেঁচে নিলে আপনি নিজের ইচ্ছে অনুযায়ী কাজ করতে পারবেন। কোন ধরনের বাধা নিষেধ নাই। বাড়িতে বসেই ছোট থেকে বড় কম্পানির অথবা কোন ব্যক্তির কাজ করতে পারেন। আর এতে আপনার কোন ধরনের ডিগ্রি বা একাডেমিক সার্টিফিকেট এর প্রয়োজন নেই। তবে কম্পিউটারের মাধ্যমে করা যায় এমন কোন কাজে যাথাযথ জ্ঞান বা অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। এই পেশায় চাকরির থেকে বেশি আয় করা যায়। যদিও এটি আপনার কর্ম দক্ষতার উপর নির্ভর করে। এমন অনেক ফ্রিল্যান্সার আছেন যারা চাকরি ছেড়ে ফ্রিল্যান্সিং করছেন। তারা মনে করেন ফ্রিল্যান্সিং এ তারা অনেক বেশি আয় করেন এবং সফল। তবে চাকরি করার পাশাপাশি ফ্রিল্যান্সিং করা যায়।

কারা কারা এই পেশায় আসতে পারে ?

যেকোনো স্তরের মানুষই ফ্রিল্যান্সিং পেশায় আসতে পারেন। এতে নারী-পুরুষ কোন ভেদাভেদ নোই, কিংবা বয়সেও কোন সিমাবদ্ধতা নেই।

ছাত্র, শিক্ষক, ব্যাবসায়ী, গৃহিণী সহ যেকোন কাজের পাশাপাশি যে কেউ ফ্রিল্যান্সিং পেশায় নিজেকে নিয়োজিত করতে পারেন। অথবা যারা পড়াশুনা শেষ করে চাকরির জন্য চেষ্টা করছেন তারাও এই পেশায় নিজেকে নিয়োজিত করতে পারেন।

একজন ফ্রিল্যান্সার, হতে পারে সে ৪০ বছরের একজন চাকরিজীবি বা ২৫ বছরের গৃহিণী।

কাজের ধরন:

এক কথায় কম্পিউটারের মাধ্যমে করা যায় এমন যেকোন কাজই একজন ফ্রিল্যান্সার পেশা হিসেবে বেচে নিতে পারেন।

এর মধ্যে জনপ্রিয়তার মধ্যে শীর্ষে থাকা কয়েকটি কাজের মাধ্যম উল্লেখ করা হল:

ওয়েব ডেভলপমেন্ট:

ওয়েবসাইট তৈরি, ওয়েবভিত্তিক সফটওয়্যার তৈরি, ওয়েবসাইট ম্যান্টেনেন্স ইত্যুাদি।

সাইবার নিরাপত্তা:

বর্তমানি বিশ্বে সাইবার নিরাপত্তা বিষয়টা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। শুধু বাংলাদেশ নয়, সরকারী বেসরকারী ভাবে বাংলাদেশে নিয়োগ চলছে সাইবার সিকিউরিটি বিশেষজ্ঞদের।

অনলাইন মার্কেট প্লেসেও রয়েছে ব্যাপক চাহিদা। অনেকেই সাইবার নিরাপত্তার উপর ফ্রিল্যান্সিং করে হয়ে উঠছে স্বাবলম্বী। এবং এটার চাহিদা বেড়েই চলছে।

ইথিক্যাল হ্যাকিং:

সঠিক পদ্ধতিতে হ্যাকিং এর মাধ্যমে আপনি উপার্জন করতে পারবেন। গুগল, ফেইসবুক, ইয়াহু সহ অসংখ্য দেশী বিদেশী কোম্পানীর ওয়েবসাইট / নেটওয়ার্ক / সিস্টেমের বিভিন্ন দূর্বলতা গুলো প্রকাশ করে আপনি আয় করতে পারবেন।

এছাড়াও অসংখ্য কাজ করেছে

  • গ্রাফিক ডিজাইন
  • কম্পিউটার প্রোগ্রামিং
  • ইন্টারনেট বিপণন/ইন্টারনেট মার্কেটিং
  • লেখালেখি ও অনুবাদ
  • মাইক্রো জবস
  • সাংবাদিকতা
  • গ্রাহক সেবা
  • ভার্চুয়াল এসিস্ট্যান্ট

কোথায় কাজ পাবো ?

অনলাইনে হাজর হাজর ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস আছে যেখানে এই ধরনের কাজ পাওয়া যায়। এছাও নিজের পোর্টফোলিও বানিয়েও সরাসরি কাজ পাওয়া যেতে পারে।

এমন অনেক ধরনের তথ্য পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।  তো আজকে এখানেই শেষ করছি অনলাইনে আয় করার প্রাথমিক ধারনা সম্পর্কে আলোচনা।

Author: admin

2 thoughts on “অনলাইনে আয় করার প্রাথমিক ধারনা

  1. Howdy! This article could not be written much better!
    Reading through this post reminds me of my previous roommate!
    He constantly kept preaching about this.

    I’ll forward this post to him. Pretty sure he’s going to have a very good read.
    Thanks for sharing!

    My blog: Royal CBD

  2. Do you mind if I quote a couple of your articles as long as I provide credit and sources back to your website?
    My blog site is in the exact same area of interest as yours and my visitors would certainly
    benefit from a lot of the information you present here. Please
    let me know if this ok with you. Many thanks!

    Feel free to surf to my webpage: RoyalCBD.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *